ইন্টারনেটের ওপর নির্ভরশীলতা বেড়েছে দেশের মানুষের

ভিন্ন খবর

করোনাকালীন সময়ে একদিকে যেমন থমকে গেছে পুরো পৃথিবী, তেমনি ইন্টারনেটের ওপর নির্ভরশীলতা বেড়েছে মানুষের। আর বিশ্বের সঙ্গে সেই প্রতিযোগিতায় তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে এদেশের মানুষও। নতুন সংযোগ আর ইন্টারনেট সেবা গ্রহীতা মিলে শুধু গত সেপ্টেম্বর মাসেই দেশের মোবাইল অপারেটর কোম্পানিগুলোর তালিকায় যুক্ত হয়েছেন প্রায় ৪০ লাখ গ্রাহক।

করোনাকালীন দুর্যোগের মধ্যে বিশ্বজুড়ে বেড়েই চলছে বাড়ি থেকে প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রম চালানোর প্রবণতা। এক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, শুধু সেপ্টেম্বর মাসেই প্রথমবারের জন্য হলেও ইন্টারনেট সেবা নিয়েছেন প্রায় ২৯ লাখ গ্রাহক। আর দেশের সবগুলো কোম্পানি মিলিয়ে নতুন সংযোগ নিয়ে তালিকায় যুক্ত হয়েছেন আরও প্রায় ১০ লাখ গ্রাহক। তাই বলাই যায়, সারা বিশ্বের মতো দেশেও প্রতিনিয়ত বাড়ছে ইন্টারনেটের ওপর নির্ভরশীলতা।

সোমবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। গত তিন মাসে অন্তত একবার কল, ইন্টারনেট অথবা ম্যাসেজ সংক্রান্ত সেবা নিয়েছেন এমন রেজিস্টার্ড গ্রাহকদের তথ্য থেকেই এমন চিত্র উঠে এসেছে।

গত সেপ্টেম্বরে দেশের মোবাইল অপারেটর কোম্পানিগুলো একদিকে যেমন সবচেয়ে বেশি ইন্টারনেট সেবা নেয়া গ্রাহক পেয়েছে, অন্যদিকে একই মাসে গ্রাহকরা সম্মুখীন হয়েছেন বিভিন্ন ইন্টারনেট সেবাজনিত সমস্যার।

জানা যায়, দেশে বর্তমানে কাজ করা চার মোবাইল অপারেটর কোম্পানিগুলোর মধ্যে গ্রামীণফোন পেয়েছে প্রায় পাঁচ লাখ নতুন গ্রাহক এবং রবি এক্সিটা লিমিটেডের খাতায় ঢুকেছে প্রায় তিন লাখ। আর সেপ্টেম্বর মাস শেষে দেশে মোট মোবাইলফোন গ্রাহকের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৬ কোটি ৭১ লাখে। সূত্র: দৈনিক ইত্তেফাক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.