ঢাকায় ছেলের বাসায় বেড়াতে গিয়ে করোনা আক্রান্ত, ফিরলেন লাশ হয়ে!

দেশের খবর সংবাদ

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের বৃদ্ধ আবদুল খালেক (৬৫) ঢাকায় ছেলের বাসায় বেড়াতে গিয়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। এরপর বুধবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

ঢাকা থেকে আবদুল খালেকের মরদেহ এনে দুপুরে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইড লাইন অনুসারে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। দাফন কাজে সহযোগিতা করে নাঙ্গলকোট উপজেলা প্রশাসন।তিনি নাঙ্গলকোট পৌরসভার ধাতিশ্বর গ্রামের বাসিন্দা।

জানা যায়, গত তিন মাস পূর্বে আবদুল খালেক ঢাকা ইসলামিয়া হাইস্কুলের শিক্ষক ছেলের বাসায় বেড়াতে যান। গত ২৫ মে ঈদের দিন ঢাকা চকবাজার শাহী মসজিদে ঈদের নামাজ পড়তে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক আনোয়ার হোসেন খন্দকার বলেন, উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশক্রমে আমরা সর্বোচ্চ সতর্কতায় যাবতীয় নিয়ম কানুন মেনে ওই বৃদ্ধের মরদেহ দাফন করি।

নাঙ্গলকোট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) লামইয়া সাইফুল বলেন, করোনা আক্রান্ত হয়ে বৃদ্ধের মৃত্যুর খবর পেয়ে লোক সমাগম না করতে তাৎক্ষণিক পুলিশ ফোর্স পাঠানো হয়। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইড লাইন অনুসারে সর্বোচ্চ সতর্কতায় ওই বৃদ্ধের মরদেহ দাফন সম্পন্ন হয়।  

এদিকে, বুধবার ৩২টি রিপোর্টের মধ্যে ৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়। তাদের মধ্যে নতুন ৪ জন পজেটিভ ও একজনের ফলোআপে পজেটিভ রিপোর্ট আসে। নতুন আক্রান্তদের মধ্যে ৩ জন হেসাখাল এলাকার ও একজন পৌর সদরের বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. দেব দাস দেব।সূত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.