দিল্লির সহিংসতা: কাঠগড়ায় নিজামুদ্দিন মার্কাজের মাওলানা সাদ

আর্ন্তজাতিক সংবাদ

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির উত্তর-পূর্ব অংশের সাম্প্রদায়িক সহিংসতার সঙ্গে দিল্লির নিজামুদ্দিন মার্কাজের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। দিল্লি পুলিশ দীর্ঘ তদন্ত শেষে সেই সহিংসতার ঘটনা নিয়ে চার্জশিট দাখিল করেছে। এতে বলা হয়েছে, দিল্লির সহিংসতায় নিজামুদ্দিন মারকাজের সদস্যরা সংশ্লিষ্ট ছিলেন।

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে দিল্লির রাজধানী পাবলিক স্কুলে ছড়িয়ে পড়া সহিংসতার ঘটনায় কাঠগড়ায় উঠছে নিজামুদ্দিন মার্কাজ। পুলিশের চার্জশিটে বলা হয়েছে, রাজধানী পাবলিক স্কুলের মালিক ফয়সাল ফারুকের সঙ্গে নিজামুদ্দিন মার্কাজের প্রধান মাওলানা সাদ ঘনিষ্ঠের যোগাযোগ রয়েছে। সেই ঘনিষ্ঠ সহচর মাওলানা সাদের হয়ে মার্কাজ সংক্রান্ত আর্থিক লেনদেন করেন।

চার্জশিটে আরও বলা হয়, মাওলানা সাদের এক আত্মীয় ফয়সালের পরিচিত। যেদিন সেই সংঘর্ষ বাধে, সেদিন ওই আত্মীয়র সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ রেখেছিলেন ফয়সাল ফারুক। পুলিশের তদন্তে সংঘর্ষের মাসখানেক আগে ফয়সাল ফারুক যমুনা বিহার ও সংলগ্ন এলাকায় কোটি টাকার ওপর সম্পত্তি কিনেছিলেন বলে উঠে এসেছে।

পুলিশের ধারণা, নিজামুদ্দিন মার্কাজের টাকা ফয়সালের মাধ্যমে ব্যবহার করা হয়েছিল। তাই সংঘর্ষে উসকানি দিতে সেই টাকা ব্যবহার করা হয়েছিল কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

সহিংসতার আগে কয়েকটি সন্দেহভাজন সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ বৃদ্ধি করেছিলেন ফারুক। দেওবন্দের কয়েকজন ধর্মগুরুর সঙ্গে সমন্বয় ছিল তার। সন্দেহভাজন কয়েকজনের মোবাইলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

দিল্লির সেই পাবলিক স্কুলের ম্যানেজারের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সংঘর্ষের সময় অভিযুক্তরা পাবলিক স্কুলের ছাদে অ্যাসিড, ইট, পেট্রোলবোমা মজুত করেছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published.