পাঁচ ওয়াক্তের আগেও কিছু নামাজ ছিল!

আমাদের ইসলাম হক কথা

নামাজ ইসলামের অন্যতম ইবাদত। প্রতিদিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়তে হয়। এই নামাজের বিধান দেওয়া হয়েছে পবিত্র শবেমেরাজে। প্রসিদ্ধ অভিমত অনুযায়ী সেটি ছিল হিজরতের এক বছর আগে। কেউ কেউ বলেন, এটি ছিল হিজরতের এক মাস আগে। তাহলে এর আগে রাসুলুল্লাহ (সা.)-এর মক্কার জীবনে কি নামাজের বিধান ছিল না—এ প্রশ্নের জবাবে ইতিহাসবিদদের মতপার্থক্য দেখা যায়।

মোকাতেল ইবনে সোলায়মান (রহ.) বলেন, ইসলামের শুরুর দিকে মহান আল্লাহ দুই রাকাত নামাজ সকালে ও দুই রাকাত নামাজ সন্ধ্যার জন্য নির্দিষ্ট করেছিলেন। সকাল-সন্ধ্যার ইবাদত সূচনা থেকেই ছিল।

ইবনে হাজার আসকালানি (রহ.) বলেন, রাসুল (সা.) ও তাঁর সাহাবায়ে কেরাম মেরাজের ঘটনার আগেই নামাজ আদায় করতেন। তবে এ ব্যাপারে মতভেদ রয়েছে যে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের আগে অন্য কোনো নামাজ ফরজ ছিল কি না। কেউ কেউ বলেন,  সূর্য উদয় হওয়ার আগে ও অস্ত যাওয়ার আগে এক একটি নামাজ ফরজ ছিল।

বারা ইবনে আজেব (রা.) ও ইবনে আব্বাস (রা.) থেকেও এ ধরনের হাদিস বর্ণিত রয়েছে। ইবনে আব্বাস (রা.) বর্ণিত হাদিসে রয়েছে, এই নামাজ ছিল প্রথম দিকে ফরজের অন্তর্ভুক্ত। (মুখতাসারুস সিরাহ, শেখ আবদুল্লাহ, পৃষ্ঠা ৮৮)

ইবনে হিশাম (রহ.) বর্ণনা করেছেন, (ইসলামের সূচনাকালে) রাসুলুল্লাহ (সা.) ও সাহাবায়ে কেরাম নামাজের সময় পাহাড়ে চলে যেতেন এবং গোপনে নামাজ আদায় করতেন। একবার আবু তালেব রাসুল (সা.) ও আলী (রা.)-কে নামাজ পড়তে দেখে ফেলেন। তিনি এ সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করেন। তাঁকে জানানোর পর তিনি বলেন, এই অভ্যাস অব্যাহত রেখো। (ইবনে হিশাম, প্রথম খণ্ড, পৃষ্ঠা ১৪৭)। সূত্রঃ কালের কণ্ঠ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.