বৃদ্ধা শ্বাশুড়িকে নির্যাতনের অভিযোগে গৃহবধূ আটক

দেশের খবর

বরিশালের আগৈলঝাড়া উপজেলার বারপাইকা গ্রামে খাবার চাওয়ার অপরাধে এক বৃদ্ধাকে (৯৫) শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ তার পুত্রবধূকে আটক করেছে পুলিশ। আহত ওই বৃদ্ধা গেনোদা বেপারী ওই এলাকার প্রয়াত সূর্য্যকান্ত বেপারীর স্ত্রী।  

গতকাল মঙ্গলবার (১৬ জুন) রাতে ওই গ্রামে অভিযান চালিয়ে ওই গৃহবধূকে আটক করে থানা পুলিশ। এর আগে ওষুধ, ফল এবং খাদ্য নিয়ে ওই বৃদ্ধাকে দেখতে যান আগৈলঝাড়া থানার ওসি আফজাল হোসেন। স্থানীয়রা জানান, বৃদ্ধা গেনোদা বেপারীর শরীরে করোনাভাইরাসর জীবানু থাকার আশঙ্কায় গত ২ মাস ধরে তাকে বসত ঘরে না রেখে ঘরের বাইরে একটি মন্দিরের সামনে রাখা হয়। গত সোমবার (১৫ জুন) দুপুরে খাবার চেয়ে না পেয়ে গোনেদা বেপারী নিজের নামে উত্তোলনকৃত বয়স্ক ভাতার টাকা চান ছেলের কাছে। এতে তার ছেলে শ্রবন প্রতিবন্ধি অসুস্থ জগদীশ বেপারী ও তার স্ত্রী শিখা রানী ক্ষিপ্ত হয়। এক পর্যায়ে তারা তাকে লাটি দিয়ে পিটিয়ে রক্তাত্ব জখম করে। 

নির্যাতনের সময় বৃদ্ধার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে গেলে জগদীশের স্ত্রী শিখা রানী তাদের অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে এবং বিষয়টি কাউকে জানালে তাদের নামে মামলা করার হুমকি দেয়। 

আগৈলঝাড়া থানার ওসি মো. আফজাল হোসেন জানান, খবর পেয়ে তিনি নিজে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে অভিযুক্ত শিখা রানীকে আটক করেন। এসময় আহত বৃদ্ধাকে প্রয়োজনীয় ওষুধ, ফল এবং খাদ্য সামগ্রী সহায়তা দেন তিনি। 

অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছেন বরিশালের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. নাঈমুল হক। সূত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.