বেকারত্বের জ্বালায় উচ্চশিক্ষিত ছেলে খুন করল বাবা-মাকে!

সংবাদ

বেকারত্বের জ্বালা যে কত মারাত্মক হতে পারে তার সাক্ষি হয়ে রইল কলকাতার অদূরে শিবপুর। বুধবার (১৮ নভেম্বর) হাওড়ার এক আবাসনের বন্ধ ফ্ল্যাট থেকে দুই মরদেহ উদ্ধারের ঘটনার পরে এক বীভৎস এবং মর্মান্তিক কাহিনী সামনে আসে।

উচ্চশিক্ষিত ছেলে চাকরি না পেয়ে অবসাদ থেকেই বাবা-মাকে খুন করেছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে ধারণা পুলিশের।

নিহতদের নাম প্রদ্যুৎ বোস এবং গোপা বোস। ছেলে শুভজিৎকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ এবং তারপরেই জানা গেছে এই চাঞ্চল্যকর ঘটনা।

বাবা-মাকে খুনের পর ওই যুবক নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা করেন বলে জানতে পেরেছে পুলিশ।

শুভজিৎ মানসিকভাবে পুরোপুরি সুস্থ নন। তার চিকিৎসার বন্দোবস্ত করা হচ্ছে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে এবং শুভজিৎকে আরো জিজ্ঞাসাবাদ করলে বিষয়টি স্পষ্ট হবে বলে জানিয়েছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা।

পুলিশের দাবি মা-বাবাকে খুনের কথা স্বীকার করেছে ছেলে শুভজিৎ। শুভজিতের বাবা একটি সরকারি সংস্থার অবসরপ্রাপ্ত কর্মী এবং তার কার্যত কোনো রোজগার ছিল না।

অন্যদিকে শুভজিৎ এমসিএ পাস অর্থাৎ কম্পিউটার সাইন্সের ছাত্র ছিলেন কিন্তু সেই অনুযায়ী চাকরি পাননি তিনি, ফলে পরিবারের অভাব-অনটন চলছিল। লকডাউনের সময় আরো সংকটে পড়ে পরিবার।

এইসব কারণে মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েন শুভজিৎ। সেই অবসাদ থেকেই খুন বলে মনে করছেন তদন্তকারী অফিসাররা। সূত্র: কালের কণ্ঠ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.