মজার গল্পঃ সিংহ, শিয়াল, আর চিতা

জোকস মজার গল্প হক কথা

সিংহ, শিয়াল, আর চিতা- তিন হি¯্রপ্রাণী মিলে সাড়াদিন জঙ্গল ঘুরে তিনটি নিরিহপ্রাণী শিকার করলো নিজেদের খাবারের জন্য। শিকার করা প্রাণীগুলো হলো-খরগোস,হরিন আর বন্যমহিস। খাবারগুলো সামনে নিয়ে সিংহ বলল, আমি চাই এগুলোকে যথাযথভাবে, ন্যায়সঙ্গতভাবে, সুসমবন্টন করে এর পর এগুলো দিয়ে আহার করবো। প্রথমেই বন্টনের দায়িত্ব দিল চিতার কাছে। চিতা বলল, মহারাজ এটাতো একদমই সহজ হিসাব। বন্টনও একদম সোজা। আপনি বড়,আপনার দেহ ও পেট বড় তাই আপনি খাবেন মহিস, আমি হরিন, আর শিয়াল খাবে খরগোশ। চিতার বন্টনে সিংহ ক্ষীপ্ত হয়ে বলল, বেয়াদব! এই অসমবন্টন নীতি আমি মেনে নিতে পারি না। এই বলে সিংহ তাকে বিশাল এক থাবা মেরে দেহ থেকে মস্তক আলাদা করে দিলো। এবার বন্টনের দায়িত্ব দিল শিয়ালের উপর। শিয়াল বলল, মহারাজ বন্টনটা একদমই সহজ। এইতো আমি বন্টন করে দিচ্ছি। খরগোশ দিয়ে আপনি ব্রেকফাস্ট করবেন, আপনি লাঞ্চকরবেন হরিনদিয়ে, আর ডিনার করবেন মহিস দিয়ে। সিংহ খুশি হয়ে বলল, বেটা! এতো সুন্দর ও সুসম বন্টন তোকে কে শিখালো। শিয়াল বলল, একটু আগে চিতা তার জীবন দিয়ে আমাকে এই নীতি শিখিয়ে গেছে। সিংহ তাকে আবারও সাবাস দিলো।

শিক্ষাঃ যেই রায় নিজের পক্ষে আসে সেই রায়ই শ্রেষ্ঠ রায় আর রায় দাতা শ্রেষ্ঠ বিচারক। নিজের পক্ষে না আসলেই অসম। অতিতের ইতিহাস থেকে যারা শিক্ষা নেয় না তারা অচিরই ভ্রান্তিতে পড়বে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.