রাত জেগে ওয়েবসিরিজ দেখা তরুণের বুদ্ধিতে বাঁচলো ৭৫ প্রাণ

সংবাদ

গভীর রাত পর্যন্ত অনলাইনে ওয়েব সিরিজ বা নাটক-সিনেমা দেখার অভ্যাস রয়েছে অনেকেরই। কখনো কখনো ভোরের আলোও ফুটে যায়। আপাত দৃষ্টিতে অনেকেরই এটাকে খারাপ অভ্যাস মনে হলেও এর জন্যই প্রাণে বাঁচলেন অন্তত ৭৫ জন মানুষ। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মুম্বাইয়ে।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার ভোরে মুম্বাইয়ের ডোম্বিভিলির কোপার এলাকায় ভেঙে পড়ে ৪০ বছরের পুরনো একটি বাড়ি। বাড়িটিতে বাস করতো ১৮টি পরিবার। সবমিলিয়ে অন্তত ৭৫ জন বাসিন্দা থাকতেন সেখানে। কিন্তু ভোর সাড়ে চারটের সময় সবাই তখন গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন ছিলেন। একমাত্র জেগে ছিলেন কুনাল মোহিতে নামে এক তরুণ। তিনি তখন অনলাইনে ওয়েবসিরিজ দেখছিলেন। মূলত তাঁর তৎপরতাতেই প্রাণে বাঁচেন গোটা বিল্ডিংয়ের বাসিন্দারা।
 
ভারতের সংবাদসংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কুনাল জানান, ভোর সাড়ে চারটের সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে। সেসময় তিনি বসে ওয়েবসিরিজ দেখছিলেন। তখনই তার রান্নাঘরের একাংশ ভেঙে পড়ে। বিপদ আসছে বুঝতে বেশি সময় লাগেনি তার। মুহূর্তের মধ্যে বাড়ির বাসিন্দাদের জাগিয়ে তোলেন তিনি। তারপর প্রত্যেককে নিয়ে বাইরে বেরিয়ে আসেন। এরপরই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে গোটা বাড়িটি। ওই তরুণের উপস্থিত বুদ্ধির কারণে প্রাণে বেঁচে গেলেন প্রত্যেকে। 

কয়েকদিন আগেই বাড়িটিকে বিপজ্জনক আখ্যা দেওয়া হয়েছিল। তারপরও তাতে বসবাস করছিলেন ওই বাসিন্দারা। তবে এলাকায় বর্তমানে নায়কের মর্যাদা পাচ্ছেন কুনাল। কারণ তার সৌজন্যেই বেঁচে গেছে এতগুলো প্রাণ। প্রত্যেকেই তাই তার প্রশংসায় পঞ্চমুখ। সূত্র: কালের কণ্ঠ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.